Home / খেলাধুলা / আজ বাংলাদেশের ওপর দিয়ে বিশ্বকাপ রোমাঞ্চের সুনামি বয়ে যাবে।।

আজ বাংলাদেশের ওপর দিয়ে বিশ্বকাপ রোমাঞ্চের সুনামি বয়ে যাবে।।

অনলাইন ডেস্ক :    দুই দিন পেরিয়ে গেছে ২০২২  কাতার বিশ্বকাপের।চারটি ম্যাচ হয়ে গেছে।দুই শিরোপা প্রত্যাশী নেদারল্যান্ডস ও ইংল্যান্ড এরই মধ্যে নিজেদের প্রথম ম্যাচ খেলে ফেলেছে।কিন্তু ফুটবল বিশ্বকাপ উত্তেজনার দমকা হাওয়া যেন এখনো যেভাবে বাংলাদেশে লাগেনি।তবে আকাশ-বাতাস কাঁপিয়ে আজ ঠিকই বাংলাদেশের ওপর দিয়ে বিশ্বকাপ রোমাঞ্চের সুনামি বয়ে যাবে।গনগনে উত্তেজনায় কেঁপে উঠবে পুরো বাংলাদেশ।আজ যে মাঠে নামবে বঙ্গদ্বীপের গণমানুষের প্রিয় দল আর্জেন্টিনা।জাদু দেখাতে নামবেন লিওনেল মেসি নামের ফুটবল জাদুকর।আর্জেন্টিনার সঙ্গে আজ মাঠে নামছে ডিফেন্ডিং চ্যাম্পিয়ন ফ্রান্সও।সুতরাং আজ উন্মাদনায় জমে ক্ষীর হওয়ার দিন বাংলাদেশ নামের বদ্বীপের মানুষের।

নিশ্চিতভাবেই কাতারে শিরোপা মিশনের অন্যতম বড় দুই দাবিদার আর্জেন্টিনা ও ফ্রান্স।দুই পরাশক্তি একই দিনে মাঠে নামলেও প্রতিপক্ষ হবে আলাদা আলাদা।সি গ্রুপে আর্জেন্টিনার প্রতিপক্ষ এশিয়ার দেশ সৌদি আরব।বাংলাদেশ সময় বিকাল ৪টায় লুসাইল স্টেডিয়ামে ম্যাচটা শুরু হবে।ডি গ্রুপে বর্তমান চ্যাম্পিয়ন ফ্রান্স মুখোমুখি হবে এশিয়া অঞ্চল থেকেই বিশ্বকাপের টিকিট কাটা অস্ট্রেলিয়ার।বাংলাদেশ রাত ১টায় আল ওয়াকরাহ’র আল জানোব স্টেডিয়ামে এই ম্যাচটা শুরু হবে।

অবশ্যই বড় দল দুইবারের বিশ্ব চ্যাম্পিয়ন ফ্রান্স।তবে বাংলাদেশের মানুষের আগ্রহ-কৌতূহলের কেন্দ্রবিন্দুতে আর্জেন্টিনার ম্যাচটিই।ফুটবল বিশ্বকাপে বাংলাদেশ মানেই দুইভাগে বিভক্ত।এক অংশ ব্রাজিলের সমর্থক।অন্য অংশ আর্জেন্টিনা।তবে সংখ্যার ভিত্তিতে আর্জেন্টিনার সমর্থকই বেশি।কাজেই আজ বাংলাদেশ হয়ে যাবে টুকরো আর্জেন্টিনা।এরই মধ্যে আর্জেন্টিনার আকাশি-সাদা জার্সি-পতাকায় ছেয়ে গেছে বাংলাদেশ।সব আয়োজন শেষ করে সমর্থকরা প্রস্তুত মেসিদের মাঠের লড়াই দেখতে। শুধু বাংলাদেশ নয়, আসলে আর্জেন্টিনা-ফ্রান্সসহ পুরো বিশ্বেই আজ উন্মাদনার বিশেষ রং লাগবে।দর্শক-সমর্থকদের উত্তেজনাকে উসকে দিতে প্রস্তুত মেসি,ডি মারিয়া,কিলিয়ান এমবাপ্পেরাও।

বরাবরের ফেভারিট বিশ্বকাপে আর্জেন্টিনা।প্রতিবারই দলটিতে থাকে তারকার মেলা।এবারের দলটিও তার ব্যতিক্রম নয়।কিন্তু গত ৩৬ বছর ধরে স্বপ্নের ট্রফিটায় হাত লাগাতে পারেনি আলবিসেলেস্তিরা।দিয়েগো মারাদোনা জাদুতে জেতা ১৯৮৬ বিশ্বকাপই আর্জেন্টাইনদের শেষ সুখের স্মৃতি হয়ে আছে।এবার সেই স্মৃতি নতুন করে ফিরিয়ে আনতে বদ্ধপরিকর মেসিরা।প্রত্যাশা অনুযায়ী দলটাও দুর্দান্ত। সবচেয়ে বড় কথা,তরুণ কোচ লিওনেল স্কালোনি আর্জেন্টিনা দলটাকে বিশেষভাবে বদলে দিয়েছেন।২০১৮ বিশ্বকাপ ব্যর্থতার পর দায়িত্ব নেওয়ার পর তিনি মনোযোগ দেন তারুণ্যনির্ভর দল গড়ার দিকে।কাতার বিশ্বকাপ সামনে রেখেই গত প্রায় সাড়ে চার বছর ধরে দলটা নিজের মতো করে গঠন করেছেন।

স্কালোনির অধীনে দলটি দুর্দান্ত ফর্মেও আছে।দীর্ঘ ২৮ বছরের অপেক্ষার অবসান ঘটিয়ে ২০২১ সালে কোপা আমেরিকার শিরোপা জিতেছেন মেসিরা।পরে বিশ্বকাপের বাছাইপর্বও পেরিয়েছে সহজেই।সেখানেই থামেনি আর্জেন্টিনা। বরং বিশ্বকাপ সামনে রেখে নিজেদের জয়যাত্রা অব্যাহত রেখেছে ২০২২ সালেও।এ বছরে খেলা ৮ ম্যাচের মধ্যে সাতটিতেই জিতেছে স্কালোনির দল।অন্যটিতে ড্র করেছে।সব মিলে টানা ৩৭ ম্যাচে অপরাজিত দুইবারের বিশ্ব চ্যাম্পিয়নরা।এই উড়ন্ত ফর্ম নিয়েই শুরু করছে কাতার মিশন। যার শুরুতেই সৌদি আরব নামের সহজ বাধা। সুতরাং এটা প্রত্যাশিতই শুরুটা জয় দিয়ে করবেন মেসিরা।

সেকথাই বলছে ফিফা র্যাংকিংও।ফিফা র্যাংকিংয়ে আর্জেন্টিনা আছে ৩নম্বরে,প্রতিপক্ষ সৌদি আরব ৫১নম্বরে।দুই দলের পরিসংখ্যানও মেসিদের পক্ষেই।বিশ্বকাপে কখনোই একেঅন্যের বিপক্ষে মুখোমুখি নাহলেও আর্জেন্টিনা-সৌদি আরব এপর্যন্ত চারটি ম্যাচ খেলেছে।যার দুটিতে জিতেছে আর্জেন্টিনা,বাকি দুটি ম্যাচ ড্র।এসব র্যাংকিং,পরিসংখ্যানের অগ্রগামিতার চেয়েও আর্জেন্টিনার কোচের সবচেয়ে বড় স্বস্তি,দলে কোনো চোট শঙ্কা নেই।তিনি তরতাজা,ফুরফুরে একটা দল নিয়েই বিশ্বকাপ যুদ্ধে ঝাঁপিয়ে পড়তে পারছেন।

ফ্রান্সও চাইবে আর্জেন্টিনার মতো জয় দিয়ে মিশন শুরু করতে।কিন্তু সেই প্রত্যাশার আড়ালে ফ্রান্স শিবিরে রয়েছে চরম অস্থিরতা।কোচ দিদিয়ের দেশমের তো ঘুম হারাম হওয়ার জোগাড়। একজন,দুজন নয়,নিয়মিত একাদশের পাঁচ জন তারকা ফুটবলার নেই ফ্রান্সের বিশ্বকাপ দলে।মাঝমাঠের প্রমাণিত দুই সৈনিক পল পগবা ও এনগোলো কন্তে দল ঘোষণার আগেই বিশ্বকাপ দৌড় থেকে ছিটকে পড়েন চোটের কারণে।দল ঘোষণার পরও চোট কেড়েনিয়েছে ফ্রান্সের তিন জনকে।প্রেসনেল কিমপেম্বে,ক্রিস্টোফার এনকুনকু ছিটকে পড়েন শেষ মুহূর্তে।তবু তাদের বিকল্প নিতে পেরেছেন দেশম।কিন্তু আক্রমণ ভাগের অন্যতম সেরা অস্ত্র করিম বেনজেমার বিকল্প হিসেবে কাউকে দলেই নেননি ফ্রান্স কোচ।কী করে পারবেন,মাসখানেক আগে ব্যালন ডি’অর জেতা বেনজেমা কাতারে এসে যে চোটের শিকার হয়েছেন।চোটের শিকার এই পাঁচ জনই ছিলেন কোচ দেশমের বড় আস্থার প্রতীক।তাদের অনুপস্থিতিতে কোচ দেশমকে একাদশ গড়তেই হিমশিম খেতে হবে।মাঠে নামাতে হবে জোড়াতালির দল।যে দলটিকে টেনে নিয়ে যাওয়ার প্রত্যাশায় তরুণ কিলিয়ান এমবাপ্পের দিকে দেশম তাকিয়ে থাকবেন।

ছবি: সংগৃহীত

About admin

Check Also

দলগুলো কত প্রাইজমানি পাবে বিশ্বকাপ থেকে।।

অনলাইন ডেস্ক :    আরেকটি বিশ্বকাপ দুয়ারে দাঁড়িয়ে।কাতারের মাটিতে বিশ্বকাপের মহারণ মাঠে গড়াতে দীর্ঘ চার বছরেরও …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *