Home / জাতীয় / এডিবি বাংলাদেশের পাশে থাকবে উন্নয়ন অংশীদার হিসেবে।।

এডিবি বাংলাদেশের পাশে থাকবে উন্নয়ন অংশীদার হিসেবে।।

অনলাইন ডেস্ক:  এশীয় উন্নয়ন ব্যাংক (এডিবি)’র একটি উচ্চ পর্যায়ের প্রতিনিধিদল বুধবার সন্ধ্যায় গণভবনে শেখ হাসিনার সঙ্গে এক সৌজন্য সাক্ষাৎকালে বলেছে,ব্যাংকটি উন্নয়ন অংশীদার হিসেবে বাংলাদেশের পাশে থাকবে।৩৩টি দেশে প্রতিনিধিত্বকারী এডিবির পরিচালনা পর্ষদের সফররত ৭ সদস্যের প্রতিনিধিদলের নেতা ইন-চাং সং বলেন, এডিবি বাংলাদেশের উন্নয়ন অংশীদার হিসেবে থাকবে। সাক্ষাৎ শেষে সাংবাদিকদের ব্রিফ করেন প্রধানমন্ত্রীর প্রেস সচিব ইহসানুল করিম।

বাংলাদেশে দ্রুত দারিদ্র্য স্তর হ্রাস ও উচ্চ জিডিপি প্রবৃদ্ধি এবং জলবায়ু পরিবর্তন প্রশমন ও খাদ্য নিরাপত্তায় অগ্রগতির প্রশংসা করে এডিবির প্রতিনিধিদল বলেন,বাংলাদেশ খাদ্য নিরাপত্তা ও জলবায়ু পরিবর্তন প্রশমনে অনেক অগ্রগতি অর্জন করেছে।বাংলাদেশকে রোহিঙ্গা প্রত্যাবাসনে সংস্থার সমর্থন অব্যাহত রাখারও আশ্বাস দেয় প্রতিনিধিদল।বাংলাদেশের ব্যাপক উন্নয়নের প্রশংসা করে এডিবি’র অন্যতম পরিচালক ক্রিস পান্ডে বলেন,বাংলাদেশ বিভিন্ন ক্ষেত্রে বিশেষ করে পরিবহন, জ্বালানি ও আবাসন ক্ষেত্রে উল্লেখযোগ্য অগ্রগতি অর্জন করেছে।উন্নয়নের স্বার্থে আঞ্চলিক সংযোগ ও সংহতি অব্যাহত রাখারও প্রয়োজনীয়তার ওপর গুরুত্বারোপ করেনএডিবি’র পরিচালক।

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা তার সরকারের ব্যাপক উন্নয়ন কর্মকান্ড উল্লেখ করে বলেন,আমার সরকার গ্রামীণ লোকজন এবং সেই সঙ্গে পল্লী এলাকাকেও দেশের সার্বিক উন্নয়নের কেন্দ্রবিন্দু হিসেবে অগ্রাধিকার দিয়েছে।প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেন, আমরা ক্ষমতায় আসার আগেই কিছু নীতি-কৌশল প্রণয়ন করেছি।এখন সেগুলো বাস্তবায়ন করছি।প্রধানমন্ত্রী বলেন,আমার দল উন্নয়ন কাজ ত্বরান্বিত করতে কঠোর পরিশ্রম করে যাচ্ছে।প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেন,তার দল ক্ষমতায় আসার আগেই একটি উন্নয়ন পরিকল্পনা প্রণয়ন করেছিল এবং ক্ষমতায় আসার পরই সেই পরিকল্পনা বাস্তবায়ন কাজ শুরু করে।একশত ইকনোমিক জোন প্রতিষ্ঠা করেছে সরকার। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা জ্বালানি,টেলিযোগাযোগ এবং পরিবহনসহ সকল খাত বেসরকারি সেক্টরের জন্য উন্মুক্ত করে দেয়ার উল্লেখ করে বলেন,দেশের উন্নয়নে বেসরকারি খাত এখন ভূমিকা রাখছে।প্রধানমন্ত্রী বলেন,সরকার সুবিধাবঞ্চিত লোকদের দেশের মূল স্রোতধারায় নিয়ে আসতে বিধবা ভাতাসহ সামাজিক নিরাপত্তা কর্মসূচি গ্রহণ করেছে।রোহিঙ্গা ইস্যুতে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেন,আমরা রোহিঙ্গাদের যতদ্রুত তাদের দেশে পাঠাতে পারব,আমাদের জন্য ততোটাই মঙ্গল হবে।তিনি কানেকটিভিটি সম্পর্কে বলেন,এব্যাপারে বাংলাদেশ,ভূটান,ভারত এবং নেপাল (বিবিআইএন) উদ্যোগ এবং আঞ্চলিক কানেকটিভিটি বাড়াতে বাংলাদেশ,চীন,ভারত,মিয়ানমার ইকোনমিক করিডর রয়েছে।বৈঠকে উপস্থিত ছিলেন প্রধানমন্ত্রীর মুখ্য সচিব মো. নজিবুর রহমান।এছাড়া উপস্থিত ছিলেন এডিবি প্রতিনিধিদের মধ্যে এডিবি’র বিকল্প পরিচালক বৈয়রম মুহাম্মেদ গ্যারাজেব, কেনজো ওহে,বুরাক মুজিনোগলু এবং এডিবি’র বাংলাদেশ বিষয়ক কান্ট্রি ডিরেক্টর মনমোহন প্রকাশ।

About admin

Check Also

উপনির্বাচন-ভোটগ্রহণ চলছে ঢাকা-১৮ ও সিরাজগঞ্জ-১ আসনে।।

অনলাইন ডেস্ক :     আজ বৃহস্পতিবার (১২ নভেম্বর) ভোটগ্রহণ অনুষ্ঠিত হচ্ছে ঢাকা-১৮ ও সিরাজগঞ্জ-১ আসনে উপনির্বাচনে।ভোটগ্রহণ …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *