Home / চট্টগ্রাম / কক্সবাজারের টেকনাফে পৃথক বন্দুকযুদ্ধে নিহত দুই জন।।

কক্সবাজারের টেকনাফে পৃথক বন্দুকযুদ্ধে নিহত দুই জন।।

অনলাইন ডেস্ক: আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সঙ্গে পৃথক ‘বন্দুকযুদ্ধে’ মো. রহিম উদ্দিন রফিক (৩৭) ও মো. আজিজ (২৪) নামের দুই যুবক নিহত হয়েছেন কক্সবাজারের টেকনাফে।আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্যরা দাবি করেছে তারা দুজনেই মাদক ব্যবসায়ী।বিজিবি সঙ্গে শনিবার দিবাগত রাত ১টার দিকে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ মো. রহিম উদ্দিন রফিক এবং পুলিশের সঙ্গে ‘বন্দুকযুদ্ধে’মো. আজিজ নিহত হন রবিবার ভোররাত ৪টার দিকে।

উপজেলার হ্নীলা ইউনিয়নের নয়াপড়ার মধ্যম কাঞ্জরপাড়া এলাকার আব্দুল জলিলের ছেলে নিহত রহিম উদ্দিন এবং টেকনাফ সদর ইউনিয়নের ডেইলপাড়া গ্রামের ছালেহ আহমদের ছেলে মো. আজিজ।লে. কর্নেল ফয়সাল হাসান খান-টেকনাফ-২ ব্যাটালিয়ন বিজিবি কমান্ডার জানান,উনচিপ্রাং বিওপির একটি বিশেষ টহল দল মদিনার জোড়া এলাকায় অভিযানে যায়।অভিযানকারিরা এই সময় কয়েকজনকে নৌকা নিয়ে নাফ নদী পার হয়ে আসতে দেখে।নদীর কিনারায় আসার পর একজন নেমে গেলে সঙ্গে সঙ্গে টহল দল তাকে চ্যালেঞ্জ করলে এই সময় ইয়াবা ব্যবসায়ীরা টহল দলকে লক্ষ্য করে অতর্কিতভাবে গুলি ছোড়ে।এতে দুই বিজিবি সদস্য আহত হন।আত্মরক্ষার্থে বিজিবিও পাল্টা গুলি ছোড়ে।পরে টহল দল ঘটনাস্থল কাঁদায় তল্লাশি করে গুলিবিদ্ধ অবস্থায় এক ব্যক্তিকে উদ্ধার করে টেকনাফ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নেয়।তাকে কক্সবাজার সদর হাসপাতালে উন্নত চিকিৎসার জন্য নিলে মৃত ঘোষণা করেন চিকিৎসক।

লে. কর্নেল ফয়সাল হাসান খান আরও জানান,মরদেহটি কক্সবাজার সদর হাসপাতাল মর্গে রাখা হয়েছে। ৬০ হাজার ইয়াবা,একটি দেশীয় বন্দুক,তিন রাউন্ড তাজা কার্তুজ ও দুইটি ধারালো কিরিচ উদ্ধার করা হয় ঘটনাস্থল থেকে।প্রাথমিক চিকিৎসা দেয়া হয়েছে আহত বিজিবির দুই সদস্যদের।আইনি প্রক্রিয়াধীন রয়েছে এই ব্যাপারে।অন্যদিকে, টেকনাফ মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) প্রদীপ কুমার দাশ জানান,মাদক মামলার আসামি মো. আজিজকে গ্রেফতার করা হয় শনিবার রাত ৯টার দিকে।সদর ইউপি মহেশখালীয়া পাড়া নৌকাঘাটে অস্ত্র ও ইয়াবা উদ্ধারে পুলিশ একটি টিম নিয়ে অভিযানে যায় তার স্বীকারোক্তি অনুযায়ী।পুলিশের উপস্থিতি টের পেয়ে তার সহযোগীরা পুলিশকে লক্ষ্য করে এলোপাতাড়ি গুলি ছোড়ে।এই সময় পুলিশের তিন সদস্য আহত হয়।আত্মরক্ষার্থে পুলিশও পাল্টা গুলি ছুড়লে সন্ত্রাসীরা পালিয়ে যায়।পরে ঘটনাস্থল থেকে একজনকে গুলিবিদ্ধ অবস্থায় উদ্ধার করে টেকনাফ উপজেলা হাসপাতাল নিলে প্রাথমিক চিকিৎসা দিয়ে জেলা সদর হাসপাতালে পাঠানো হলে মৃত ঘোষণা করেন চিকিৎসক।ওসি প্রদীপ কুমার দাশ আরও জানান,এই সময় ঘটনাস্থল উদ্ধার করা হয়েছে থেকে তিন হাজার ইয়াবা,একটি এলজি ও সাত রাউন্ড কার্তুজ।হাসপাতালের মর্গে রাখা হয় মরদেহটি।

বি: দ্র: প্রতীকী ছবি

About admin

Check Also

কক্সবাজারে নিজের মেয়েকে ধর্ষণের দায়ে অভিযুক্ত পিতাকে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দিয়েছেন আদালত।।

অনলাইন ডেস্ক :    আদালত যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দিয়েছেন কক্সবাজারে নিজের মেয়েকে ধর্ষণের দায়ে অভিযুক্ত পিতাকে।একই সাথে …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *