Home / চট্টগ্রাম / নাফনদীতে নৌকায় মাছ ধরতে গিয়ে বিজিপির ছোঁড়া গুলিতে এক বাংলাদেশী জেলে নিহত।।

নাফনদীতে নৌকায় মাছ ধরতে গিয়ে বিজিপির ছোঁড়া গুলিতে এক বাংলাদেশী জেলে নিহত।।

অনলাইন ডেস্ক :     অভিযোগ উঠেছে মিয়ানমার সীমান্তরক্ষী বাহিনীর (বিজিপি) ছোঁড়া গুলিতে এক বাংলাদেশী জেলে নিহত হয়েছেন নাফনদীতে নৌকায় মাছ ধরতে গিয়ে। শনিবার (৭ নভেম্বর) সন্ধ্যার পর গুলিবিদ্ধ জেলে কক্সবাজার সদর হাসপাতালে সার্জারি বিভাগে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যান গভীর রাতে।টেকনাফ সদর ইউনিয়ন ৯নং ওয়ার্ড বরইতলী এলাকার গুরা মিয়ার ছেলে নিহত জেলে মোহাম্মদ ইসলাম (৩৫)।

তথ্যমতে,টেকনাফ সদর ইউনিয়ন পরিষদের (ইউপি) ৯নং ওয়ার্ড সদস্য নজির আহমদ বলেন,তিন জেলে কাঠের নৌকা নিয়ে নাফনদীতে মাছ শিকারে নামে শনিবার সন্ধ্যায়। মিয়ানমারের বিজিপি তাদেরকে লক্ষ্য করে গুলি ছোঁড়ে এর কিছুক্ষণ পর।সেখানে মোহাম্মদ ইসলামের পেটে গুলি লেগে আহত হলে তাকে রক্তাক্ত অবস্থায় উদ্ধার করে টেকনাফ হাসপাতালে নিয়ে আসে তার সঙ্গে থাকা অন্য জেলেরা।কক্সবাজার সদর হাসপাতালে প্রেরণ করা হয় তার অবস্থা আশঙ্কাজনক দেখে।রাতে সেখানে  মারা যায় চিকিৎসাধীন অবস্থায়।

তথ্যমতে,টেকনাফ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স জরুরি বিভাগের চিকিৎসক মো. সাজ্জাদ হোসেন বলেন, স্থানীয় লোকজন রাতে নিয়ে আসেন গুলিবিদ্ধ এক ব্যক্তিকে।গুলির আঘাত রয়েছে তার পেটের ডান পাশে।তাকে প্রাথমিক চিকিৎসা দিয়ে কক্সবাজার সদর হাসপাতালে পাঠানো হয় উন্নত চিকিৎসার জন্য।  

তথ্যমতে,তথ্যের সত্যতা নিশ্চিত করে টেকনাফ ২-বিজিবি ব্যাটালিয়নের অধিনায়ক লে. কর্নেল মোহাম্মদ ফয়সল হাসান খান বলেন,আমরাও খবর পেয়েছি বিজিপির গুলিতে আমাদের বাংলাদেশী এক যুবক আহত হয়ে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা গেছেন।খোঁজ নিয়ে জেনেছি,রাতের আধারে কয়েকজন জেলে নৌকা নিয়ে নাফনদে নেমে মিয়ানমার জল সীমানায় ঢুকে যায় নিষেধ থাকা সত্ত্বেও। এরপর একজন গুলিবিদ্ধ হয় বিজিপি তাদের লক্ষ্য করে গুলি চালালে এবং পরে মারা যায়।তবে,এটি নিশ্চিত নয় যে তারা আসলে মাছ শিকারে নাকি অন্য কোন উদ্দেশ্যে গিয়ে ছিল।একটি প্রতিবাদ লিপি পাঠানো হয়েছে এরপরও বিজিবির পক্ষ থেকে যেন ভবিষ্যতে এভাবে অকারণে গুলি করে বাংলাদেশীকে হত্যা করা না হয়।এদিকে বিজিপি জানিয়েছে,তাদের সীমানায় ঢুকে পরায় গুলি করেছে নৌকায় থাকারা সন্ত্রাসী মনে করে।

তথ্যমতে,টেকনাফ মডেল থানার পরিদর্শক (তদন্ত) আব্দুল আলিম বলেন,গুলিবিদ্ধ হয়ে এক ব্যক্তি আহত হওয়ার খবর শুনেছিলাম।কেউ জানায়নি মারা যাবার বিষয়টি।এ ব্যাপারে খোঁজ নেয়া হচ্ছে বলে  তিনি উল্লেখ করেন।

উল্লেখ্য,রোহিঙ্গা অবৈধ অনুপ্রবেশ ও মাদক পাচার প্রতিরোধ করতে সরকার নাফনদীতে মাছ শিকার নিষিদ্ধ ঘোষণা করে বিগত ২০১৭ সালের ২৫ আগস্ট থেকে।সীমান্তে দায়িত্বরত আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্যরা এরপর থেকে কোন জেলেকে নাফনদীতে মাছ শিকারে যেতে নিষেধ করে।কিন্তু অনেক জেলে নাফনদে মাছ শিকার করতে যান রাতের আধারে কর্মরত বাহিনীর চোখ ফাঁকি দিয়ে এবং হত্যার শিকার হন এভাবে।

*প্রতীকী-ফাইল ছবি-তথ্য সংগ্রহকরা*

About admin

Check Also

অবশেষে কক্সবাজার জেলা ছাত্রলীগের নতুন কমিটি ঘোষণা।।

অনলাইন ডেস্ক :     অবশেষে কক্সবাজার জেলা ছাত্রলীগের নতুন কমিটি ঘোষণা করা হয়েছে নানা জল্পনা-কল্পনার পর।১৪ …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *