Home / রাজনীতি / বিরোধী রাজনীতি ও ভিন্ন মতকে সরকার নিশ্চিহ্ন করতে চায়-মির্জা ফখরুল ।।

বিরোধী রাজনীতি ও ভিন্ন মতকে সরকার নিশ্চিহ্ন করতে চায়-মির্জা ফখরুল ।।

অনলাইন ডেস্ক: অবাধ ও সুষ্ঠু নির্বাচনের দাবিতে বিএনপির আন্দোলন চলছে এবং এটি অব্যাহত থাকবে।বলেছেন,বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর।তিনি এই কথা বলেন,দলের ৪১তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষে রাজধানীর শেরেবাংলা নগরের চন্দ্রিমা উদ্যানে বিএনপির প্রতিষ্ঠাতা সাবেক রাষ্ট্রপতি জিয়াউর রহমানের কবর জিয়ারত শেষে সাংবাদিকদের সঙ্গে আলাপকালে।বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেন,দেশে গণতন্ত্র নেই।মানুষের মতপ্রকাশ করার অধিকার নেই। গণতন্ত্র পুনরুদ্ধারে ও একটি অবাধ সুষ্ঠু নির্বাচন দাবিতে বিএনপির চলমান আন্দোলন চলবে।৪১তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীতে এটিই আমাদের প্রত্যয়।

বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেন,বিরোধী রাজনীতি ও ভিন্ন মতকে সরকার ‘নিশ্চিহ্ন’ করতে চায়,এই জন্য সব ধরনের চক্রান্ত ও ষড়যন্ত্র অব্যাহত রেখেছে।ভিন্ন মতকে দমনে সরকার সচেষ্ট।প্রয়াত রাষ্ট্রপতি জিয়াউর রহমানের বিদেহী আত্মার মাগফিরাত কামনা করা হয় দোয়া মোনাজাতে।দোয়া করা হয়,দেশ ও জাতির শান্তি,দলীয় চেয়ারপারসন কারাবন্দি খালেদা জিয়ার সুস্বাস্থ্য কামনা করে।দলের স্থায়ী কমিটির সদস্য ড. খন্দকার মোশাররফ হোসেন, ব্যারিস্টার মওদুদ আহমদ,ড. আবদুল মঈন খান,নজরুল ইসলাম খান ও আমীর খসরু মাহমুদ চৌধুরী,ভাইস চেয়ারম্যান মো. শাহাজাহান,ডা. এজেডএম জাহিদ হোসেন,অ্যাডভোকেট আহমেদ আযম খান,মীর নাসির উদ্দিন ও শাহজাহান ওমর বীর উত্তম,চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা জয়নুল আবদিন ফারুক ও ডা. সিরাজউদ্দীন আহমেদ,যুগ্ম-মহাসচিব ব্যারিস্টার মাহবুব উদ্দিন খোকন,সৈয়দ মোয়াজ্জেম হোসেন আলাল,হাবিব উন নবী খান সোহেল ও খায়রুল কবির খোকন,সাংগঠনিক সম্পাদক রুহুল কুদ্দুস তালকুদার দুলু, প্রচার সম্পাদক শহীদ উদ্দিন চৌধুরী এ্যানি প্রমুখ এই সময় উপস্থিত ছিলেন।

১৯৭৮ সালে বিএনপি প্রতিষ্ঠার পর ফেলে আসা ৪১টি বছরে সংঘাত-বিক্ষোভ,বিএনপি আজ দেশের অন্যতম শীর্ষ রাজনৈতিক দল জনপ্রিয়তা আর চড়াই-উত্রাইয়ের পথপরিক্রমায়।প্রতিষ্ঠার পর উন্নয়ন উৎপাদনের আধুনিক রাজনীতিকে মূল প্রতিপাদ্য করে ১৯ দফা কর্মসূচির আলোকে মোটে পাঁচ মাসের মাথায়  জাতীয় সংসদ নির্বাচনে বিএনপি ২০০টি আসন লাভ করে ১৯৭৯ সালের ফেব্রুয়ারিতে। কেন্দ্রীয়ভাবে দুই দিনের কর্মসূচি হাতে নেওয়া হয়েছে প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষ্যে।আজ ১ সেপ্টেম্বর ভোরে দলের নয়াপল্টনস্থ কেন্দ্রীয় কার্যালয় এবং দেশব্যাপী দলীয় কার্যালয়গুলোতে জাতীয় ও দলীয় পতাকা উত্তোলন,সকাল ১০টায় রাষ্ট্রপতি জিয়াউর রহমানের মাজারে মাজার জিয়ারত ও পুষ্পস্তবক অর্পণ করবেন নেতারা। ইঞ্জিনিয়ারিং ইন্সটিটিউটে এক আলোচনা সভার কর্মসূচি রয়েছে একই দিন বেলা ৩টায়।প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীর শোভাযাত্রা বের করা হবে আগামীকাল।পুলিশ ইতিমধ্যে এই শোভাযাত্রা করার জন্য অনুমতি দিয়েছে।

(বি:দ্র: ছবি-তথ্য সংগ্রহকরা)

About admin

Check Also

বিএনপি মুখে গণতন্ত্রের কথা বললেও তাদের অন্তরে ষড়যন্ত্র ও প্রতিহিংসা-ওবায়দুল কাদের।।

অনলাইন ডেস্ক :    আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেছেন, …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *