Home / রাজনীতি / সরকারের দক্ষ পরিচালনাতেই দেশ মধ্যম আয়ে উন্নীত হয়েছে,মাথাপিছু আয়ে ভারতকে ছাড়িয়ে গেছে-তথ্যমন্ত্রী।।

সরকারের দক্ষ পরিচালনাতেই দেশ মধ্যম আয়ে উন্নীত হয়েছে,মাথাপিছু আয়ে ভারতকে ছাড়িয়ে গেছে-তথ্যমন্ত্রী।।

অনলাইন ডেস্ক :    আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক এবং তথ্যমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ পরীমণিকে নিয়ে সংসদে আলোচনার বিষয়ে বলেছেন,সংসদে বিএনপি দলীয় নেতা পরীমণিকে নিয়ে বেশ কয়েকদিন ধরে বক্তব্য রেখেছেন।আমার কাছে মনে হলো তার কাছে বেগম খালেদা জিয়ার চেয়েও ঐ চিত্রনায়িকা বেশি গুরুত্বপূর্ণ হয়ে গেছে,সেজন্যই এটা নিয়ে তিনি বেশ কয়েকদিন বক্তব্য দিয়েছেন।

আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক এবং তথ্যমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ একথা বলেন সোমবার (২১ জুন) দুপুরে সচিবালয়ে মন্ত্রণালয়ের সভাকক্ষে এক চুক্তি স্বাক্ষর অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তৃতায়।তথ্যমন্ত্রী বলেন,ঢাকা শহরে কে কোথায় মদ্যপান করলো,সেখানে ভাংচুর হলো আর তার প্রেক্ষিতে সেখানে কিছু ঘটনা ঘটলো তাতে যেভাবে সবাই মত্ত হয়ে গেল,অথচ বিষয়টা জাতির জন্য মোটেও কোনো গুরুত্বপূর্ণ ঘটনা নয়।আমি এ নিয়ে মন্তব্য করতে চাই না।তবে কেউ হেনস্তার শিকার হওয়াও ঠিক নয়,কেউ অহেতুক হয়রানি হওয়াও ঠিক নয়।

আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক এবং তথ্যমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ মনে করেন,সরকারের দক্ষ পরিচালনাতেই দেশ মধ্যম আয়ে উন্নীত হয়েছে,মাথাপিছু আয়ে ভারতকে ছাড়িয়ে গেছে।সরকার দক্ষভাবে দেশ পরিচালনা করতে পেরেছে বলেও এটি সম্ভবপর হয়েছে।করোনার মধ্যেও মানুষের মাথাপিছু আয় বেড়েছে।করোনার মধ্যেও আমাদের জিডিপি প্রবৃদ্ধি হতে যাচ্ছে ৬ দশমিক ১ শতাংশ এবং মূল্যস্ফীতি ৫ শতাংশের মধ্যেই সীমাবদ্ধ রয়েছে।

আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক এবং তথ্যমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ বলেন,পৃথিবীর বিভিন্ন পত্রপত্রিকা বাংলাদেশের এই অগ্রগতিতে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বের প্রশংসায় পঞ্চমুখ।শুধু বাংলাদেশে অনেকে সেই অগ্রগতি দেখতে পায় না।দু’একটি সংবাদমাধ্যমেও আমরা দেখতে পাই এ নিয়ে বিশ্লেষণ করা হয় এবং এই অগ্রগতি আসলে কতোটুকু সে নিয়ে প্রশ্ন তোলার অপচেষ্টা চালু হয়।এই অপচেষ্টা আজকে হচ্ছে তা নয়,এই অপচেষ্টা গত সাড়ে ১২ বছর ধরেই হচ্ছে।এসত্ত্বেও দেশ এগিয়েছে।

আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক এবং তথ্যমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ গণমাধ্যম সংশ্লিষ্টদের প্রতি অনুরোধ জানিয়ে বলেন,অবশ্যই আপনারা সরকারের বা যে কোনো দায়িত্বশীলের ব্যর্থতা,ত্রুটি নিয়ে আলোচনা হবে,কিন্তু পাশাপাশি অগ্রগতিটাও মানুষকে জানাতে হবে।কারণ মানুষ যখন দেশকে নিয়ে আশাবাদী হবে তখনই দেশ ও সমাজ এগিয়ে যাবে।আশাহীন মানুষ যেমন এগিয়ে যেতে পারেনা,আশাহীন সমাজও পারেনা।দেশের অগ্রগতি যদি বিশ্বের পত্রপত্রিকায় প্রচারিত হয় অথচ আমাদের দেশে ঠিকভাবে না হয়,সেটি খুবই দু:খজনক।ছবি-তথ্য সংগৃহীত

About admin

Check Also

ডিজিটাল বাংলাদেশের নেপথ্য নায়ক সজীব ওয়াজেদ জয়ের আজ ৫১তম জন্মদিন।।

অনলাইন ডেস্ক :    সর্বকালের সর্বশ্রেষ্ঠ বাঙালি,স্বাধীনতার মহান স্থপতি,জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের দৌহিত্র এবং …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *