Home / জাতীয় / ৫ লাখ ২৩ হাজার ১৯০ কোটি টাকা-প্রস্তাবিত বাজেট…

৫ লাখ ২৩ হাজার ১৯০ কোটি টাকা-প্রস্তাবিত বাজেট…

অনলাইন ডেস্ক: বাজেট প্রস্তাব করা হয়েছে ২০১৯-২০ অর্থবছরের জন্য ৫ লাখ ২৩ হাজার ১৯০ কোটি টাকার।একাদশ জাতীয় সংসদের তৃতীয় অধিবেশনে বাজেট পেশ করেন,অর্থমন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামাল বৃহস্পতিবার বিকেল ৩টায়।দেশের ৪৮তম, আওয়ামী লীগ সরকারের ২০তম এবং অর্থমন্ত্রী হিসেবে মুস্তফা কামালের প্রথম বাজেটএটি।জাতীয় সংসদের অধিবেশন শুরু হয়-বৃহস্পতিবার বিকেলে ৩টায় কোরআন তেলাওয়াতের মধ্যদিয়ে।অর্থমন্ত্রী জাতীয় সংসদের স্পিকার শিরীন শারমিন চৌধুরীর কাছ থেকে অনুমতি নেন বাজেট বক্তৃতার শুরুর আগে।৫ লাখ ২৩ হাজার ১৯০ কোটি টাকা নতুন বাজেটের আকার ধরা হয়েছে।যা মোট দেশজ উৎপাদনের (জিডিপি) ১৮ দশমিক ১ শতাংশ।৪ লাখ ৬৪ হাজার ৫৭৩ কোটি টাকা চলতি বাজেটের আকার।নতুন বাজেটের আকার বাড়ছে ১২ দশমিক ৬ শতাংশের বেশি সে হিসাবে।১ লাখ ৪৫ হাজার ৯৫০ কোটি টাকা বাজেটে ঘাটতির পরিমাণ ধরা হয়েছে।যা চলতি অর্থবছরের বাজেট থেকে ২০ হাজার ৬৫৭ কোটি টাকা বেশি।এই বাজেট পাস হবে আগামী ৩০ জুন।নতুন অর্থবছর শুরু হবে ১ জুলাই থেকে।দুপুর ১টার দিকে তিনি জাতীয় সংসদে প্রবেশ করেন জাতীয় বাজেট ঘোষণার জন্য অর্থমন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামাল।আ হ ম মুস্তফা কামালের এটি প্রথম বাজেট অর্থমন্ত্রী হিসেবে।টানা একাদশ বাজেট প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে আওয়ামী লীগ সরকারের।

যেসব খাতে আয় ধরা হয়েছে বাজেটে-

অর্থমন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামাল ২০১৯-২০ অর্থবছরের জন্য ৫ লাখ ২৩ হাজার ১৯০ কোটি টাকার প্রস্তাবিত বাজেট উপস্থাপন শুরু করেছেন।স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরীর অনুমতি নিয়ে তিনি বাজেট উপস্থাপন করতে শুরু করেনবৃহস্পতিবার ৩টার পর।জাতীয় রাজস্ব বোর্ড নিয়ন্ত্রিত কর থেকে এবারের প্রস্তাবিত বাজেটের সবচেয়ে বড় আয়ের উৎস ধরা হয়েছে।শতকরা ৬২ দশমিক ২ শতাংশ বা প্রায় ৩ লাখ ২৫ হাজার ৪২৪ কোটি টাকা এই খাত থেকে আয় ধরা হয়েছে।অর্থায়নের উৎস থেকে দেখা যায় এবারের প্রস্তাবিত বাজেটে,বৈদেশিক অনুদান থেকে আসবে মোট বাজেটের শতকরা দশমিক ৮ শতাংশ বা প্রায় ৪ হাজার একশ ৮৫ কোটি টাকা।শতকরা ১২ দশমিক ২ শতাংশ বা প্রায় ৬৩ হাজার ৮২৯ কোটি টাকা বৈদেশিক ঋণ থেকে আসবে।শতকরা ১৪ দশমিক ৮ শতাংশ বা প্রায় ৭৭ হাজার ৪৩২ কোটি টাকা অভ্যন্তরীণ ঋণ থেকে আসবে।শতকরা ৭ দশমিক ২ শতাংশ বা প্রায় ৩৭ হাজার ৬৭০ কোটি টাকা কর ব্যতীত প্রাপ্তি থেকে আসবে।শতকরা ২ দশমিক ৮ শতাংশ বা প্রায় ১৪ হাজার ৬৪৯ কোটি টাকা জাতীয় রাজস্ব বোর্ড বহির্ভূত কর থেকে আসবে।

ব্যয় ধরা হয়েছে বাজেটে যেসব খাতে…

৫ লাখ ২৩ হাজার ১৯০ কোটি টাকার প্রস্তাবিত বাজেট উপস্থাপন শুরু করেছেন অর্থমন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামাল ২০১৯-২০ অর্থবছরের জন্য।বৃহস্পতিবার ৩টার পর স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরীর অনুমতি নিয়ে তিনি বাজেট উপস্থাপন করতে শুরু করেন।পরে তিনি অসুস্থ বোধ করায় বাজেটের অর্থমন্ত্রীর বাজেট ঘোষণার পরবর্তী অংশ প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা পাঠ করছেন।জনপ্রশাসন খাতকে এবারের প্রস্তাবিত বাজেটে সবচেয়ে বড় ব্যয়ের খাত হিসেবে ধরা হয়েছে। এ খাতে ২০১৯-২০ অর্থবছরে ব্যয় ধরা হয়েছে শতকরা ১৮ দশমিক ৫ শতাংশ বা প্রায় ৯৬ হাজার ৭৯০ কোটি টাকা। শিক্ষা ও প্রযুক্তি খাতে ব্যয় ধরা হয়েছে মোট বাজেটের শতকরা ১৫ দশমিক ২ শতাংশ বা প্রায় ৭৯ হাজার ৫২৫ কোটি টাকা। বিভিন্ন সুদের জন্য ব্যয় ধরা হয়েছে শতকরা ১০ দশমিক ৯ শতাংশ বা প্রায় ৫৭ হাজার ২৮ কোটি টাকা।পরিবহন ও যোগাযোগ খাতে ব্যয় ধরা হয়েছে শতকরা ১২ দশমিক ৪ শতাংশ বা প্রায় ৬৪ হাজার ৮৭৫ হাজার কোটি টাকা। স্থানীয় সরকার ও পল্লী উন্নয়ন খাতে ব্যয় ধরা হয়েছে শতকরা ৭ দশমিক ২ শতাংশ বা প্রায় ৩৭ হাজার ৬৭০ কোটি টাকা। জ্বালানি ও বিদ্যুৎ খাতে ব্যয় ধরা হয়েছে শতকরা ৫ দশমিক ৪ শতাংশ বা প্রায় ২৮ হাজার ২৫২ কোটি টাকা। স্বাস্থ্য খাতে ব্যয় ধরা হয়েছে শতকরা ৪ দশমিক ৯ শতাংশ বা প্রায় ২৫ হাজার ৬৩৬ কোটি টাকা।শতকরা ৬ দশমিক ১ শতাংশ বা প্রায় ৩১ হাজার ৯১৪ কোটি টাকা প্রতিরক্ষা খাতে ব্যয় ধরা হয়েছে।সামাজিক নিরাপত্তা ও কল্যাণ খাতে ব্যয় ধরা হয়েছে শতকরা ৫ দশমিক ৬ শতাংশ বা প্রায় ২৯ হাজার ২৯৮ কোটি টাকা। জনশৃংখলা ও নিরাপত্তা খাতে ব্যয় ধরা হয়েছে শতকরা ৫ দশমিক ৩ শতাংশ বা প্রায় ২৭ হাজার ৭২৯ কোটি টাকা।গৃহায়ন খাতে ব্যয় ধরা হয়েছে শতকরা ১ দশমিক ৩ শতাংশ বা প্রায় ৬ হাজার ৮০১ কোটি টাকা। বিনোদন, সংস্কৃতি ও ধর্ম খাতে ব্যয় ধরা হয়েছে শতকরা দশমিক ৯ শতাংশ বা প্রায় ৪ হাজার ৭০৮ কোটি টাকা।শতকরা দশমিক ৭ শতাংশ বা প্রায় ৩ হাজার ৬৬২ কোটি টাকাশিল্প ও অর্থনৈতিক সার্ভিস খাতে ব্যয় ধরা হয়েছে।শতকরা দশমিক ২ শতাংশ বা এক হাজার ৪৬ কোটি টাকা এছাড়াও বিবিধ ব্যয়ের জন্য ধরা হয়েছে।

৫.৫ শতাংশ মূল্যস্ফীতির লক্ষ্য…

মূল্যস্ফীতি ৫.৫ শতাংশের মধ্যে রাখার লক্ষ্য নির্ধারণ করা হয়েছে আসছে ২০১৯-২০ অর্থবছরের প্রস্তাবিত বাজেটে।৫ দশমিক ৬ শতাংশ ২০১৮-১৯ অর্থবছরের প্রস্তাবিত বাজেটে মূল্যস্ফীতি নির্ধারণ করা ছিল।৫ লাখ ২৩ হাজার ১৯০ কোটি টাকার বাজেট প্রস্তাব করা হয়েছে ২০১৯-২০ অর্থবছরের জন্য।বৃহস্পতিবার বিকেল ৩টায় একাদশ জাতীয় সংসদের তৃতীয় অধিবেশনে বাজেট পেশ করেন অর্থমন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামাল।এটি দেশের ৪৮তম, আওয়ামী লীগ সরকারের ২০তম এবং অর্থমন্ত্রী হিসেবে মুস্তফা কামালের প্রথম বাজেট।৪ লাখ ৬৪ হাজার ৫৭৩ কোটি টাকা চলতি বাজেটের আকার।সেই হিসাবে ১২ দশমিক ৬ শতাংশের বেশিনতুন বাজেটের আকার বাড়ছে।১ লাখ ৪৫ হাজার ৯৫০ কোটি টাকা বাজেটে ঘাটতির পরিমাণ ধরা হয়েছে।২০ হাজার ৬৫৭ কোটি টাকা বেশিচলতি অর্থবছরের বাজেট থেকে।এই বাজেট পাস হবে আগামী ৩০ জুন।নতুন অর্থবছরশুরু হবে ১ জুলাই থেকে।

(বি:দ্র:ফাইলছবি-তথ্য সংগ্রহকরা)

About admin

Check Also

উপনির্বাচন-ভোটগ্রহণ চলছে ঢাকা-১৮ ও সিরাজগঞ্জ-১ আসনে।।

অনলাইন ডেস্ক :     আজ বৃহস্পতিবার (১২ নভেম্বর) ভোটগ্রহণ অনুষ্ঠিত হচ্ছে ঢাকা-১৮ ও সিরাজগঞ্জ-১ আসনে উপনির্বাচনে।ভোটগ্রহণ …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *