Home / রাজশাহী / রাবি শিক্ষার্থীকে লোহার রড দিয়ে পিটিয়ে গুরুতর আহত।।

রাবি শিক্ষার্থীকে লোহার রড দিয়ে পিটিয়ে গুরুতর আহত।।

অনলাইন ডেস্ক:  রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের (রাবি) শাখা ছাত্রলীগের দুই কর্মীর বিরুদ্ধে  সোহরাব মিয়া নামে এক শিক্ষার্থীকে লোহার রড দিয়ে পিটিয়ে গুরুতর আহত করার অভিযোগ উঠেছে।এই ঘটনা ঘটে শুক্রবার (১৫ নভেম্বর) দিবাগত রাতে বিশ্ববিদ্যালয়ের শহীদ শামসুজ্জোহা হলে।বর্তমানে তিনি রাজশাহী মেডিকেল কলেজ ও হাসপাতালে চিকিৎসাধীন।এই ঘটনার প্রতিবাদ ও বিচারের দাবিতে বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা ঢাকা-রাজশাহী মহাসড়ক অবরোধ করেছে।

বিশ্ববিদ্যালয়ের ফিন্যান্স বিভাগের তৃতীয় বর্ষের শিক্ষার্থী ও শামসুজ্জোহা হলের আবাসিক ছাত্র সোহরাব হোসেন।অভিযুক্ত দুই ছাত্রলীগ কর্মীর নাম আসিফ লাক ও হুমায়ুন কবির নাহিদ।শাখা ছাত্রলীগের সভাপতি গোলাম কিবরিয়ার অনুসারী তারা দুইজনই।জানাযায়,আসিফ লাকের নেতৃত্বে কয়েকজন ছাত্রলীগ কর্মী সোহরাবকে ল্যাপটপ চুরির অভিযোগে হলের তৃতীয় ব্লকের ২৫৪ নাম্বার কক্ষে নিয়ে যায় শুক্রবার রাতে।এক পর্যায়ে সোহরাবকে আসিফ লাক ও হুমায়ন কবির নাহিদ রড দিয়ে পেটায়। মারধরের পর সোহরাবের বন্ধুরা রাজশাহী মেডিকেল কলেজ (রামেক) হাসপাতালে ভর্তি করে গুরুতর আহত অবস্থায়।আঘাতে বাম হাতের কনুইয়ের ওপর ও নিচে দুই জায়গায় ভেঙে গেছে ও মাথায় মোট ১৫টি সেলাই দেওয়া হয়েছে সোহরাবের।

বিশ্ববিদ্যালয় শাখা ছাত্রলীগের সভাপতি গোলাম কিবরিয়া এই বিষয়ে বলেন,চার সদস্যের একটি তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছে ২৪ ঘণ্টা সময় দিয়ে।আমরা সাংগঠনিক ব্যবস্থা নেবো তদন্ত প্রতিবেদন জমা হলে।

বেলা ১১টায় বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রধান ফটকের সামনে অবরোধ কর্মসূচি পালন করেছে শিক্ষার্থীরা ঘটনায় জড়িতদের দ্রুত গ্রেপ্তার ও স্থায়ীভাবে বিশ্ববিদ্যালয় থেকে বহিষ্কার,প্রাধ্যক্ষের পদত্যাগ,ভিকটিমের চিকিৎসার সকল ব্যয়ভার বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসনকে বহন করাসহ বিভিন্ন দাবিতে।আজকের মধ্যে দাবি পূরণ না হলে আগামীকাল আবারও কর্মসূচি পালনের ঘোষণা দিয়ে শিক্ষার্থীরা আন্দোলন স্থগিত করেন।

বি: দ্র: ছবি সংগ্রহকরা

About admin

Check Also

চারঘাটে জমি নিয়ে ভাইয়ের হাতে ভাই খুন,সংঘর্ষে নিহত ১,আহত ৫।।

মোঃ সাইফুল ইসলাম রায়হান-রাজশাহী। রাজশাহীর চারঘাটে জমি নিয়ে বিরোধের জের ধরে সংঘর্ষের ঘটনায় ভাতিজার হাসুয়ার …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *